logo
logo
news image

ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে দায়িত্ব নিলেন মেয়র জাহাঙ্গীর

গাজীপুর: ২৩৬ কোটি টাকা ঋণ মাথায় নিয়ে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের দায়িত্ব নিয়েছেন মো. জাহাঙ্গীর আলম। মঙ্গলবার (৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে জেলা শহরের রাজবাড়ি মাঠে বিশাল প্যান্ডেলে প্রায় ২৫ হাজার নেতাকর্মী ও অতিথিদের উপস্থিতিতে তিনি মেয়রের দায়িত্ব নিয়েছেন।
দায়িত্ব গ্রহণের পর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম তার বক্তৃতায় আগামী ৫ বছরে নগরীতে উন্নয়নের পরিকল্পনা তুলে ধরেন। নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী জনগণকে দেওয়া প্রতিটি প্রতিশ্রুতি তিনি রক্ষার চেষ্টা করবেন বলে নগরবাসীকে আশ্বস্ত করেন। মেয়র জাহাঙ্গীর আলম সিটি কর্পোরেশনের নিজস্ব উৎস, সরকারি অর্থায়ন ও বিদেশি সহযোগিতায় গাজীপুরকে গ্রিন ও ক্লিন সিটি হিসেবে গড় তুলতে সবার সহযোগিতা কামনা করেন। 
প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় সরকার, পল্লি উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন এমপি বলেছেন, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন একটি নতুন সিটি কর্পোরেশন হিসেবে সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হবে। নগরীর উন্নয়নের জন্য গত অর্থবছরে ১৭ কোটি বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল। চলতি অর্থবছরে তিনগুণ বেশি করে ৫১ কোটি টাকা বরাদ্দের ঘোষণা দেন। 
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তারিখ ধরে উন্নয়নের রোড ম্যাপ তৈরি করেন। ২০২১ সালের মধ্যে দেশকে আমরা মধ্যম আয়ের দেশে রুপান্তরিত করবো। শিল্প প্রতিষ্ঠানকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়ে মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে তিনি বলেন, শিল্প স্থাপনকে সহযোগিতা করবে, আর তারা যে ট্যাক্স দেবে তা দিয়ে সিটির উন্নয়ন করা যাবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক এমপি বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শেখ হাসিনা যাকে মনোনয়ন দেবেন আমরা তাকেই জয়ী করবো। আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জয়ী হতে না পারলে জনগণকে দেওয়া কোনো প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে পারবো না। আগামীতে নৌকার বিজয় ঘরে আনতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থেকে কাজ করতে হবে। 
জাহাঙ্গীর আলম তার বক্তব্যে বলেন, আমি নগরবাসীকে বলেছিলাম একটি সুন্দর পরিকল্পিত নগরী উপহার দেব। নগরবাসী আমাকে বিশ্বাস করেছে, সেই বিশ্বাসের মর্যাদা আমি রাখব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নৌকাকে ভালোবেসে গাজীপুরের জনগণ আমাকে যে আশায় ভোট দিয়ে বিজয়ী করেছে, আমি তাদের এই আশার প্রতিফলন ও প্রতিদান দেওয়ার চেষ্টা করবো। সবাইকে নিয়েই একটি বাসযোগ্য শহর গড়ে তুলবো। সব মানুষ যেন নিরাপদে ঘুমাতে পারে এবং কর্মস্থলে যেতে পারে সে ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। সিটি কর্পোরেশনের কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারী নগরীর কোনো নাগরিকের কাছে অনৈতিক কিছু দাবি করলে তাকে জানাতে বলেন এবং তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন।
গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন, মহিলা শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, স্থানীয় সরকার, পল্লি উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার ওয়াই. এম বেলালুর রহমান, গাজীপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আখতারউজ্জামান, গাজীপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার, গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আজমত উল্লাহ খান, গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ইকবাল হোসেন সবুজ প্রমুখ। 
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কে.এম রাহাতুল ইসলাম।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top