logo
logo
add image
news image

ভিক্ষা করে খেলেও আর বিদেশে যাব না

সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরে গতকাল শাহজালাল বিমানবন্দরে গৃহকর্মী ফরিদা বেগম নির্যাতনের বর্ণনা দিতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন। ‘আর বিদেশে যাব না। দরকার পড়লে ভিক্ষা করে খাব। প্রতিদিন মারছে। খাবার-দাবার নাই। বেতন চাইলেই মারে। পুলিশে দিছে। ১২ দিন জেলে থাকছি।’ গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে সৌদি আরব থেকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছে কান্নাজড়িত কণ্ঠে এসব কথা বলছিলেন ফরিদা বেগম (৪০)। ফরিদার সঙ্গে একই ফ্লাইটে একই ধরনের অভিজ্ঞতা নিয়ে ফিরেছেন আরো ৬৪ নারীকর্মী।

ফরিদা বেগমের বাড়ি খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা এলাকায়। এই নারীর স্বামী সাত বছর আগে মারা গেছেন। এক মেয়ে চার ছেলে। সন্তানরা মায়ের খোঁজ নেয় না। তাই ঋণ করে ১১ মাস আগে সৌদি আরব যান তিনি। গৃহকর্মীর কাজে নেওয়ার পর পাঁচ মাস হাড়ভাঙা পরিশ্রম করেও তিনি কোনো বেতন পাননি। ঈদের দিনও জোটেনি ভালো খাবার।

গতকাল ফিরে আসা নারীরা জানান, বাংলাদেশ দূতাবাসের আশ্রয়কেন্দ্রেও হয়রানির শিকার হয়েছেন তারা। যারা এখন সৌদিতে আছেন, তাঁরা নানা রকমের হয়রানির শিকার হচ্ছেন।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top