logo
logo
news image

স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে পারবেন

স্থানীয় সরকারের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা সংসদ নির্বাচনে নিজ দলীয় বা পছন্দের প্রার্থীদের পক্ষে কাজ করতে পারবেন, তবে তারা সংশ্লিষ্ট পদবি ও সরকারি সুযোগ-সুবিধা ব্যবহার করতে পারবেন না।

জাতীয় একটি পত্রিকায় প্রকাশিত ‘এমপি প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে পারবেন না মেয়র-চেয়ারম্যান’ শিরোনামের সংবাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে এ কথা জানান নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব এস এম আসাদুজ্জামান।

জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উদ্দেশে স্থানীয় সরকার বিভাগের পাঠানো এক নির্দেশনায় জনপ্রতিনিধিদের তাদের পদমর্যাদা, সরকারি সুযোগ-সুবিধা ইত্যাদি কোনো প্রার্থীর নির্বাচনী কাজে ব্যবহার না করতে ইতিমধ্যে নির্দেশনা দেয়া হয়।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব এস এম গোলাম ফারুক স্বাক্ষরিত নির্দেশনাটি সিটি কাপোরেশনের মেয়র, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়র, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের কাছে পাঠানো হয়।

নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব এস এম আসাদুজ্জামান ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘মেয়র-চেয়ারম্যানসহ নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা প্রচারণায় অংশ নিতে পারবেন, তবে তারা সরকারি সুযোগ-সুবিধা ও পদমর্যাদা ব্যবহার করতে পারবেন না।’

আসাদুজ্জামান উদাহরণ হিসেবে বলেন, ‘একজন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি তার অফিস কোনো প্রার্থীর নির্বাচনী কাজে ব্যবহার করতে পারবেন না, এমনকি সরকারি গাড়ি নিয়ে প্রার্থীর কোনো কাজে যেতে পারবেন না। প্রচারণাকালে নিজের জনপ্রতিনিধি পরিচয় দিতে পারবেন না।’

আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা, সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠানের জন্য স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোর বিভিন্ন দায়িত্ব পালনের জন্য ১০টি নির্দেশনা দেয়া হয় ওই চিঠিতে।

এর ৫ নম্বর নির্দেশনায় বলা হয়, ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা, সিটি কর্পোরেশন,  জেলা পরিষদ এবং উপজেলা পরিষদে এমন কোনো উন্নয়ন স্ক্রিম গ্রহণ ও বাস্তবায়ন না করা, যা জাতীয় সংসদ নির্বাচনে  কোনো প্রার্থীর  ভোট প্রাপ্তিতে বা প্রচারণার পক্ষে ব্যবহৃত হতে পারে।

৬ নম্বরে বলা হয়, এসব প্রতিষ্ঠান ইউনিয়ন পরিষদ,  পৌরসভা, সিটি কর্পোরেশন,  জেলা পরিষদ কিংবা উপজেলা পরিষদে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে অনুদান বা অনুদানের প্রতিশ্রুতি দিতে পারবে না, যা  কোনো প্রার্থীর  ভোটপ্রাপ্তি বা প্রচারণার কাজে প্রভাব বিস্তার করবে।

স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের কোনো অফিস, যানবাহন এবং অন্যান্য সম্পত্তি এমনকি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কোনো প্রার্থীর নির্বাচন বা প্রচারণার কাজে ব্যবহার করা যাবে না বলে নির্দেশনায় বলা হয়।
এরপর বলা হয়, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের নির্বাচিত প্রতিনিধিরা তাদের পদমর্যাদা, সরকারি সুযোগ-সুবিধা ইত্যাদি কোনো প্রার্থীর নির্বাচনী কাজে ব্যবহার করতে পারবেন না।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top