logo
logo
news image

প্রতিবন্ধীদের প্রতি সহানুভূতিশীল হোন: প্রধানমন্ত্রী

আন্তরিকতা ও সহযোগিতার মনোভাব নিয়ে সবাইকে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস ও জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “প্রত্যেকের অন্তত এটুকু চিন্তা করা উচিৎ- প্রতিবন্ধী তো কেউ ইচ্ছে করে হয়নি। কাজেই তাদের প্রতি সহানুভূতিশীল হতে হবে, আন্তরিক হতে হবে, তাদেরকে সহযোগিতা করতে হবে।”

বিশ্বের অনেক প্রতিভাবান বিজ্ঞানী, সঙ্গীতজ্ঞ, কবি ও লেখক, যারা প্রতিবন্ধী ছিলেন, তাদের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী অন্য সবার মত প্রতিবন্ধীদেরও মেধা বিকাশের সুযোগ করে দেওয়ার ওপর জোর দেন।

“যারা অটিস্টিক বা প্রতিবন্ধী আছেন, তাদের ভেতরেও এরকম সুপ্ত মেধা থাকতে পারে, যেটা বিকশিত হবার সুযোগ আমাদের করে দিতে হবে।”

তিনি চাকরি, ব্যবসা ও ক্রীড়াসহ নানা ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধীদের সাফল্যের কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, “আমরা ছোটবেলায় আদর্শলিপিতে পড়েছি, কানাকে কানা বলিও না, খোড়াকে খোড়া বলিও না। সেই শিক্ষাটা এখন সেইভাবে আর দেওয়া হয় না।”

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদেরও সাধারণ স্কুলে পড়ানোর পক্ষে মত দিয়ে তিনি বলেন, “আমরা নির্দেশ দিয়েছি প্রতিবন্ধীরা চাইলে সাধারণ স্কুলে ভর্তি হতে পারবে। সেই সুযোগটা তাদের জন্য রাখতে হবে; শিক্ষক, অভিভাবক, ছাত্র-ছাত্রী সকলেরই এ ব্যাপারে আন্তরিক থাকতে হবে।”

সব প্রতিবন্ধীর জন্য আলাদা স্কুল করলে, তারা প্রতিবন্ধিতা মোকাবেলায় সফল হবে না বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী।

“বেশি প্রতিবন্ধী যারা তাদেরকে দেখে দেখে অন্যরা আরও বেশি প্রতিবন্ধী হবে। তারা আর সুস্থ হওয়ার সুযোগ পাবে না। তবে হ্যাঁ ক্ষেত্র বিশেষে থাকবে। আমরা সেটা করে দিচ্ছি।”

শেখ হাসিনা প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে তার সরকারের নেওয়া বিভিন্ন কর্মসূচির কথা উল্লেখ করেন।

প্রতিবন্ধী শিশুদের রাষ্ট্রীয় সুরক্ষার আওতায় আনতে জীবনচক্রভিত্তিক কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নের কাজ চলছে বলেও জানান তিনি। এসময় প্রতিবন্ধীদের সহায়তায় বিত্তবানদের এগিয়ে আসারও আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য কয়েকজন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে সন্মাননা দেওয়া হয়।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top